Media News 99

This the Best Media News Update Site In World

শরীরের যে ৭টি অংশ ভুলেও হাত দিয়ে স্পর্শ করবেন না..!

আমরা প্রত্যেকেই সারাদিনে নিজেদের শরীর স্পর্শ করি অজস্রবার। কিন্তু ডাক্তাররা বলছেন, সুস্থ থাকতে চাইলে শরীরের বিশেষ কিছু অংশ স্পর্শ না করাই বুদ্ধিমানের কাজ। কোন অংশ সেগুলি? আসুন, জেনে নিই—

১. কানের ছিদ্র : কানের ছিদ্রের ভিতরে কোনো কিছুই ঢুকানো করানো কখনওই উচিৎ নয়। ডাক্তাররা বলছেন, কানের ছিদ্রের ভিতরে যে চামড়া থাকে তা অত্যন্ত পাতলা হয়। কাজেই, আঙুল বা পেন বা পেনসিল জাতীয় কোনো কিছুই কানে প্রবেশ করালে বিপদ ঘটতে পারে। তাহলে কান চুলকোলে কী করবেন? ডাক্তাররা বলছেন, মুখ বুজে ওই অস্বস্তিটুকু সহ্য করাই সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর। এমনকী কান পরিষ্কার করতে হলেও ডাক্তারের দ্বারস্থ হওয়াই সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ।

২. মুখ : মুখ ধোওয়া বা ত্বক চর্চার সময় মুখে হাত ছোঁওয়াতেই হবে। কিন্তু বাদবাকি অন্য সময়ে নিজের হাত দু’টিকে নিজের মুখ থেকে দূরেই রাখুন। কারণ সারাদিনের কাজের প্রয়োজনে বিভিন্ন জায়গায় আমাদের হাত ছোঁওয়াতেই


হয়। সেই‌ সুবাদে হাতে লেগে যায় বিভিন্ন রকমের জীবাণু। মুখে হাত দিলে সেগুলো সঞ্চারিত হয় মুখেও। তাছাড়া আমাদের আঙুলের ডগাটি হয় তৈলাক্ত। মুখে হাত ছোঁওয়ালে সেই তেল মুখের ত্বকে লেগে যায়। এই জীবাণু এবং তৈলাক্ত উপাদান— দু’টিই মুখে ব্রণ, ফুসকুড়ি ইত্যাদির কারণ হয়।

৩. নিতম্ব : শৌচকার্যের সময়ে বা স্নানের সময়ে নিতম্ব স্পর্শ করতেই হয়। কিন্তু অন্য কারণে নিতম্বে, বিশেষত পায়ু্দ্বারে হাত না দেওয়াই ভাল। ডাক্তাররা বলছেন, মলদ্বারে কিছু জীবাণু তো থাকেই, সেই জীবাণুগুলি প্রায়শই ছড়িয়ে যায় নিতম্বের অন্যান্য অংশেও। কাজেই অপ্রয়োজনে নিতম্বে হাত দেওয়ার অর্থ— ওই সব জীবাণুকে শরীরের অন্যান্য অংশেও ছড়িয়ে যেতে সাহায্য করা।

৪. চোখ : কনট্যাক্ট লেন্স পরার সময়ে চোখে হাত লেগে যেতে পারে ঠিকই, কিন্তু চোখ চুলকানো বা চোখ পরিষ্কারের জন্য চোখে হাত দেয়া একেবারেই অনুচিৎ। কারণ এই উপায়ে হাতের জীবাণুগুলি চোখে সঞ্চারিত হওয়ার সুযোগ পায়। চোখ ধোওয়ার সময়েও জলের ঝাপটা দিন চোখে, সরাসরি চোখে হাত দেবেন না।

৫. ঠোঁট এবং মুখের ভিতরের অংশ : ডাক্তারি সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, মানবশরীর যে সব বীজাণুর দ্বারা আক্রান্ত হয় তার ১/৩ অংশই হাত থেকে মুখের মাধ্যমে শরীরে প্রবেশ করে। কাজেই মুখে হাত দেয়া থেকে বিরত থাকাই ভাল।

৬. নাকের ভিতরে : নাকে আঙুল দেয়াটা সামাজিকভাবে যেমন অশোভন তেমনই অস্বাস্থ্যকরও। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, স্টাফাইলোকোকাস অরিয়াস নামের ব্যাক্টেরিয়ায় যারা আক্রান্ত হন তাদের ৫১ শতাংশেরই নাকের ভিতর আঙুল দেয়ার অভ্যাস থাকে।

৭. নখের ভিতরের অংশ : স্বাভাবিকভাবে নখের ভিতরের অংশ স্পর্শ করার কোনো কারণ নেই। কিন্তু নখ পরিষ্কার করার সময় নখের ভিতরের অংশ স্পর্শ করার সম্ভাবনা থাকে। সেই সময় আঙুল ব্যবহার করার পরিবর্তে নরম ব্রাশ ব্যবহার করুন। এতে নখের ভিতর যে বীজাণু এবং মৃত কোষগুলি থাকে তা শরীরের অন্য অংশে সঞ্চারিত হওয়ার সুযোগ পাবে না।-এবেলা

 

Loading...
[X]

Related posts:

এখনি জেনে নিন ? আপনার NID দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন হয়েছে যাচাই করুন
জেনে নিন,বিবাহিত নারীরা তরুণদের যেসব কথায় দূর্বল হয়ে পরেন....!
শুধু রান্নার মশলা নয়, ভেষজ ওষুধ হিসাবেও দীর্ঘদিন ব্যবহৃত হয়ে আসছে রসুন। স্বাস্থ্যকর খাবারগুলোর মধ্যে...
৩ লাখ নেবে কানাডা, সপরিবারে স্থায়ী বসবাসের সুযোগ !
বাসর রাতে যা করবেন, যা করবেন না ----- দেখুন ভিডিও !!
Updated: July 13, 2016 — 3:05 pm

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Media News 99 © 2016 Frontier Theme